সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৮:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম
শিরোনাম
বেনজিনের নাভানা পার্ক বন্ধ ঘোষণা নিজ বাসা থেকে বাবা- মেয়ের মরা দেহ উদ্ধার সন্ধ্যার মধ্যে তীব্র ঝড় যেসব অঞ্চলে কুষ্টিয়ায় রেলের কৃষিজমি ৮০ হাজার টাকা কাঠায় বিক্রি, বাড়ি নির্মাণ হিট স্ট্রোকে অটোচালকের মৃত্যু পরকীয়া করতে গিয়ে যুবক খুন, আটক ৩ ভোট গ্রহনে অনিয়ন হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের চাকুরী থাকবে না… নির্বাচন কমিশনার সাতক্ষীরা পৌর এলাকায় সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত ও বর্ধিত পানির বিল প্রত্যাহারের দাবীতে গণঅবস্থান কর্মসূচী গাবুরা ইউনিয়ন জলবায়ু সহনশীল ফোরামের অর্ধবার্ষিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত শ্যামনগরে আমন মৌসুমে ১১৪৮০ কেজি ধানবীজ ও ৯১৮৪ কেজি সার বিতরণ করেছে লিডার্স

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষে ৬ পুলিশসহ আহত ২০

নিজস্ব প্রতিবেদক / ২০৬ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২২, ৭:০৬ অপরাহ্ন

শরীয়তপুরের জাজিরা পৌরসভায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু গ্রামের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ৬ পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। বুধবার রাতে জাজিরা পৌরসভার ব্যাংক মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় শত শত বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় উভয়পক্ষ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে জাজিরা থানা পুলিশ ১৬ রাউন্ড টিয়ারসেল ও শতাধিক রাবার বুলেট ছোড়ে।

জাজিরা থানার এসআই ইকরাম হোসেন ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২০ মার্চ উপজেলা চত্বরে বঙ্গবন্ধুর ১০২তম জন্মদিন উপলক্ষে মেলায় জাজিরা পৌরসভার ফকির কান্দি ও আক্কেল মাহমুদ মুন্সি কান্দি এলাকার লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। ফকির কান্দি গ্রুপের নেতৃত্ব দিচ্ছেন কাউন্সিলর রতন ও জাজিরা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রুবেল বেপারী। আক্কেল মাহমুদ মুন্সি কান্দি এলাকার নেতৃত্ব দিচ্ছে জাজিরা পৌরসভার সাবেক কমিশনার মুনসুর খা ও জেলা পরিষদের সদস্য নাসির খানের সমর্থকরা। এর জের ধরে বুধবার রাতে দু গ্রুপের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয় গ্রুপে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এতে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র, শত শত হাতবোমা ও ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়। বোমা ও ইট পাটকেলের আঘাতে পুলিশ কনস্টেবল ইমরুল হাসান (২৬), ইসলাম শেখ (২৪), আশ্রাফ (২৫), আশিক (২৭), জোহান (২৮) ও উত্তম (৩৮) মারাত্মক আহত হয়েছে।

এ ছাড়াও শাকিল শিকদার (১৮), ওয়াজকুরুনি গাজী (১৮), রিফাত বেপারী (১৮), অর্জুন ফকির (১৭), জাহিদ সরদার (২২), রাজন শেখ (২৬) ও বিকাশ চৌকিদারসহ (৩৭) ১৪-১৫ জন মারাত্মক আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে জাজিরা উপজেলা হাসপাতাল, শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল ও আবু সালাম ফকিরের ছেলে রাব্বি ফকির (১৭) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সংঘর্ষের সময় মোক্তার হোসেন, জুয়েল মাদবর ও একটি ব্যাংকের শাখাসহ ৭টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে জাজিরা থানা পুলিশ ১৬ রাউন্ড টিয়ারসেল ও শতাধিক রাবার বুলেট ছোড়ে।

জাজিরা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রুবেল বেপারী বলেন , আমি কোনো গ্রুপের নেতৃত্ব দেইনি। এটা দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ। আমি বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করছি।

জাজিরা পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর মুনসুর খা বলেন, দুই গ্রামবাসীর মারামারির বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা চলছে।

জাজিরা থানার ওসি ফারুক হোসাইন বলেন, আমরা খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১৬ রাউন্ড টিয়ারসেল ও প্রায় শতাধিক রাবার বুলেট নিক্ষেপ করেছি। ৬ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

সূত্রঃ যুগান্তর


এ জাতীয় আরো খবর ....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Translate »
error: Content is protected !!
Translate »
error: Content is protected !!