রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০২:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
শিরোনাম
বেনজিনের নাভানা পার্ক বন্ধ ঘোষণা নিজ বাসা থেকে বাবা- মেয়ের মরা দেহ উদ্ধার সন্ধ্যার মধ্যে তীব্র ঝড় যেসব অঞ্চলে কুষ্টিয়ায় রেলের কৃষিজমি ৮০ হাজার টাকা কাঠায় বিক্রি, বাড়ি নির্মাণ হিট স্ট্রোকে অটোচালকের মৃত্যু পরকীয়া করতে গিয়ে যুবক খুন, আটক ৩ ভোট গ্রহনে অনিয়ন হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের চাকুরী থাকবে না… নির্বাচন কমিশনার সাতক্ষীরা পৌর এলাকায় সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত ও বর্ধিত পানির বিল প্রত্যাহারের দাবীতে গণঅবস্থান কর্মসূচী গাবুরা ইউনিয়ন জলবায়ু সহনশীল ফোরামের অর্ধবার্ষিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত শ্যামনগরে আমন মৌসুমে ১১৪৮০ কেজি ধানবীজ ও ৯১৮৪ কেজি সার বিতরণ করেছে লিডার্স

বরগুনার তালতলীতে সন্তানসহ গৃহবধূ নিখোঁজ!

মোঃ রনি মল্লিক, বরগুনা থেকে / ১৯৪ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বুধবার, ১৬ মার্চ, ২০২২, ৮:২৪ অপরাহ্ন

বরগুনার তালতলীতে নানার বাড়ি যাওয়ার কথা বলে ৮ দিন যাবৎ শিশু সন্তানসহ জেসমিন আক্তার নামের এক গৃহবধূ নিখোঁজ রয়েছেন। স্ত্রী সন্তান নিখোঁজ থাকায় পাগলপ্রায় তার স্বামী ইব্রাহিম।

এ ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়রি করেছেন স্বামী ইব্রাহিম। বুধবার সাংবাদিকদের কাছে এমন অভিযোগ করেন ইব্রাহিম।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত ৬ বছর পূর্বে উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নের সেরাজ মাতুব্বরের ছেলে ইব্রাহিম মাতুব্বরের সাথে একই এলাকার মো. চুন্নুর মেয়ে জেসমিনের বিয়ে হয়। বিয়ের পরে দাম্পত্য জীবন সুখেই কাটে তাদের। তাদের কোলজুড়ে দুটি সন্তান রয়েছে। গত ৯ মার্চ সকালে একই এলাকায় তার নানার বাড়িতে যাওয়ার কথা বলে ছেলে ইয়াছিনকে (১) নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়। ওই দিন দুপুরে ইব্রাহিম নানা শশুরবাড়ি গিয়ে জানতে পারেন তার স্ত্রী ওই বাড়িতে যায়নি। পরে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজি করেও স্ত্রী ও সন্তানের কোনো খোঁজ পাননি। পরে তালতলী থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন স্বামী।

নিখোঁজ জেসমিনের স্বামী ইব্রাহিম মাতুব্বর বলেন, আমার স্ত্রী তার নানার বাড়ি কথা বলে বাড়ি থেকে আমার ছেলেকে নিয়ে বের হয়। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজখবর আমরা পাইনি। এজন্য থানায় সাধারণ ডায়েরি করি। নিখোঁজের কিছুদিন পরে জানতে পারি সে তার পরকীয়া প্রেমিকের সাথে পালিয়ে গেছে। এখন আমার স্ত্রীর দরকার নেই শুধুমাত্র আমার সন্তানকে চাই আর কিছু চাই না।

তিনি আরো বলেন, গত ছয় মাস আগে বরগুনার একটি ছেলের সাথে তার পরকীয়া সম্পর্ক ছিল৷ এ নিয়ে ঝামেলা হলে সেটা স্থানীয়ভাবে মীমাংসা হয়। হয়তোবা সেই ছেলের সাথে পালিয়ে গেছে।

এ বিষয় জেসমিনের নানি রাবেয়া বলেন, একটি ছেলের সাথে সম্পর্ক ছিল এটা শুনেছিলাম। তবে বর্তমানে আমার নাতনি জেসমিন কোথায় আছে আমি জানি না।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, এ বিষয় থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেছে। আমরা তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করছি।


এ জাতীয় আরো খবর ....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Translate »
error: Content is protected !!
Translate »
error: Content is protected !!