শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম
শিরোনাম
রেলওয়ের জমিতে আ.লীগ নেতার ঘর নির্মাণ ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ ইউএনও’র বেনজিনের নাভানা পার্ক বন্ধ ঘোষণা নিজ বাসা থেকে বাবা- মেয়ের মরা দেহ উদ্ধার সন্ধ্যার মধ্যে তীব্র ঝড় যেসব অঞ্চলে কুষ্টিয়ায় রেলের কৃষিজমি ৮০ হাজার টাকা কাঠায় বিক্রি, বাড়ি নির্মাণ হিট স্ট্রোকে অটোচালকের মৃত্যু পরকীয়া করতে গিয়ে যুবক খুন, আটক ৩ ভোট গ্রহনে অনিয়ন হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের চাকুরী থাকবে না… নির্বাচন কমিশনার সাতক্ষীরা পৌর এলাকায় সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত ও বর্ধিত পানির বিল প্রত্যাহারের দাবীতে গণঅবস্থান কর্মসূচী গাবুরা ইউনিয়ন জলবায়ু সহনশীল ফোরামের অর্ধবার্ষিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

ভয় দেখিয়ে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক / ২০৯ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : রবিবার, ১৩ মার্চ, ২০২২, ১১:০২ পূর্বাহ্ন

দা দিয়ে গলা কেটে জবাই করে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সীমান্ত গ্রামে এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার সকালে উপজেলার সীমান্ত গ্রাম রাজাইয়ে এ ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছে।

অভিযুক্তর নাম আবুল কালাম ওরফে স্পাই কাল্লু (৫২)। সে উপজেলার উওর বড়দল ইউনিয়নের রাজাই সীমান্ত গ্রামের মৃত লোকমান মুন্সির ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চার সন্তানের জনক আবুল কালাম ওরফে স্পাই কাল্লু ভারতীয় বিএসএফের কথিত স্পাই (সোর্স) আন্ত:সীমান্তের ভারতীয় মাদক ও বিড়ি চোরাকারবারী হিসাবে এলাকায় পরিচিতি মুখ।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টায় ভিকটিমের পরিবার যুগান্তরকে জানান, শনিবার সকালে উপজেলার রাজাই গ্রামের আবুল কালাম ওরফে কাল্লু প্রতিবেশী কয়লা শ্রমিক দম্পতির ১০ বছরের শিশু কন্যা স্কুল ছাত্রীকে মুরগীর বাচ্চা ধরার কথা বলে নিজ ঘরে ডেকে নেয়।

আরও জানান, এর পর বসতঘরে পরিবারে অন্যরা না থাকায় দা দিয়ে গলা কেটে জবাই করে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে জোর পূর্বক ওই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করে। মা-বাবা পরিবারের লোকজন কয়লা উক্তোলনে চলে গেলে, ফাঁকা বাড়িতে একা থাকার মেরে ফেলারও ভয় দেখানো হয় ওই স্কুলছাত্রীকে।

শনিবার বাদ মাগরিব মা-বাবা পরিবারের লোকজন নদীতে থেকে কয়লা উক্তোলন শেষে বাড়ি ফিরলে ধর্ষণের বিষয়টি ওই স্কুলছাত্রী জানায়।

শুধু শনিবার সকালেই ধর্ষণ নয় এর আগে গত ৭ ফেব্রুয়ারি উপজেলায় সাত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণের দিন আবুল কালাম ওরফে কাল্লু ভয় দেখিয়ে আরও একবার ওই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে বলেও পরিবারের লোকজনকে জানায়।

শনিবার রাতে উপজেলার রাজাই গ্রামের ভিকটিমের মা-বাবা কয়লা শ্রমিক যুগান্তরকে জানান, আমাদের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের বিষয়টি এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ ও থানা পুলিশকে জানিয়েছি।

শনিবার রাতে তাহিরপুর থানার ওসি মো. আব্দুল লতিফ তরফদার যুগান্তরকে বলেন, স্কুলছাত্রীর বাবা-মা ভিকটিমকে সঙ্গে নিয়ে সশরীরে থানায় উপস্থিত হয়ে ধর্ষণের ঘটনাটি জানিয়েছেন।

এ ব্যাপরে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান ওসি।

সূত্রঃ যুগান্তর


এ জাতীয় আরো খবর ....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Translate »
error: Content is protected !!
Translate »
error: Content is protected !!