শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৭:১৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম
শিরোনাম
রেলওয়ের জমিতে আ.লীগ নেতার ঘর নির্মাণ ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ ইউএনও’র বেনজিনের নাভানা পার্ক বন্ধ ঘোষণা নিজ বাসা থেকে বাবা- মেয়ের মরা দেহ উদ্ধার সন্ধ্যার মধ্যে তীব্র ঝড় যেসব অঞ্চলে কুষ্টিয়ায় রেলের কৃষিজমি ৮০ হাজার টাকা কাঠায় বিক্রি, বাড়ি নির্মাণ হিট স্ট্রোকে অটোচালকের মৃত্যু পরকীয়া করতে গিয়ে যুবক খুন, আটক ৩ ভোট গ্রহনে অনিয়ন হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের চাকুরী থাকবে না… নির্বাচন কমিশনার সাতক্ষীরা পৌর এলাকায় সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত ও বর্ধিত পানির বিল প্রত্যাহারের দাবীতে গণঅবস্থান কর্মসূচী গাবুরা ইউনিয়ন জলবায়ু সহনশীল ফোরামের অর্ধবার্ষিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

সাফারি পার্কে গুরুতর অসুস্থ সিংহী

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৮৬ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২২, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন

কক্সবাজারের চকরিয়ার ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে গুরুতর অসুস্থ একটি সিংহী। আড়াই মাসে একাধিকবার বিশেষজ্ঞ টিম নিয়ে বোর্ড বসিয়েও সুস্থতার কোনো লক্ষ্মণ পাচ্ছে না পার্ক কর্তৃপক্ষ।

পার্কের তত্ত্বাবধায়ক মো. মাজহারুল ইসলাম জানান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে রক্ষিত সিংহী (নদী নামে পরিচিত) গত ২ ফেব্রুয়ারি একই বেষ্টনীর সঙ্গী পুরুষ সিংহের (সম্রাট) সঙ্গে মারামারি করে। এ সময় পুরুষ সিংহ অপেক্ষাকৃত বেশি আঘাত পায়। এ সময় পার্কে কোনো ভেটেরিনারি অফিসার না থাকায় চকরিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার পরামর্শক্রমে চিকিৎসা দেওয়া হয়। চিকিৎসায় পুরুষ সিংহ সুস্থ হয়ে ওঠে।

এর পর ১৯ ফেব্রুয়ারি শারীরিক মিলনের সময় সিংহ ও সিংহী আবার মারামারিতে জড়িয়ে উভয়ে জখম হয়। এ মারামারিতে সিংহী অপেক্ষাকৃত বেশি আঘাত পায়। উভয় সিংহকে ভেটেরিনারি অফিসার ডা. মোস্তাফিজুর রহমানের ভার্চুয়াল পরামর্শ মতে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

সিংহটি সুস্থ হয়ে উঠলেও সিংহীর গলার নিচে জখম হয়ে সেখান থেকে পানি ঝরা শুরু হয়। গত ২২ ও ২৭ ফেব্রুয়ারি পার্কের বর্তমান ভেটেরিনারি অফিসার ডা. হাতেম সাজ্জাত জুলকার নাইন চিকিৎসা দেন।

তত্ত্বাবধায়ক আরও জানান, সিংহীর গলার নিচ থেকে পানি ঝরা বন্ধ না হওয়ায় ২৮ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞ ডাক্তার, চকরিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এবং পার্কের ভেটেরিনারি অফিসার হাতেম সাজ্জাত জুলকার নাইনসহ ৫ সদস্যের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দ্বারা মেডিকেল বোর্ড গঠন করে অসুস্থ সিংহীটিকে চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছে। কিন্তু এর পরও দিন দিন খাদ্যগ্রহণ কম করতে থাকে এবং মুখ থেকে লালা ঝরা কমেনি।

২৭ মার্চ থেকে একেবারে খাবার গ্রহণ বন্ধ করে দেয় সিংহী। এ সময়ে সিংহীটি সব সময় জিহ্বা বের করে রাখে এবং লালা ঝরার পরিমাণও বেড়ে যাওয়ায় আবারও চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার, চকরিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এবং পার্কের ভেটেরিনারি অফিসারসহ চার সদস্যের মেডিকেল বোর্ড দ্বারা সিংহীটিকে চিকিৎসাসেবা প্রদান অব্যাহত রাখা হয়। ঘা পরীক্ষা করে দেখা গেছে, সেখানে ব্যাকটেরিয়া ইনফেকশন করেছে।

পার্কের ইনচার্জ মাজহারুল ইসলাম বলেন, রোগের কোনো উন্নতি না হয়ে সিংহীটি আরও দুর্বল হয়ে পড়ছে। এর পরও বোর্ডের পুরোনো সিদ্ধান্ত মতে, ৭ এপ্রিল চকরিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আবারও অসুস্থ সিংহীকে চিকিৎসা দেয়। যা এখনো অব্যাহত রাখা হয়েছে। আর পার্ক কর্তৃপক্ষ ভেটেরিনারি অফিসার ও বিশেষজ্ঞ টিমকে প্রয়োজনীয় সব সাপোর্ট প্রদান করা সত্ত্বেও সিংহীটির শারীরিক কোনো উন্নতি না হওয়ায় উদ্বিগ্ন।

এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা চেয়ে গত ৮ এপ্রিল বণ্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের চট্টগ্রামস্থ বিভাগীয় বন কর্মকর্তার কাছে পত্র পাঠানো হয়েছে। এখনো সিংহীর শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত বলে উল্লেখ করেন পার্ক তত্ত্বাবধায়ক মো. মাজহারুল ইসলাম।

সূত্রঃ যুগান্তর


এ জাতীয় আরো খবর ....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Translate »
error: Content is protected !!
Translate »
error: Content is protected !!