শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ১০:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
কুষ্টিয়ায় দুস্থ ও অসহায়দের মাঝে মহিলা আওয়ামীলীগের ঈদ বস্ত্র বিতরণ শাড়ী, লুঙ্গী ও খাদ্যসামগ্রীর সাথে মুরগীও পেলেন দুস্থ্য ও হতদরিদ্ররা হারভেস্টার মেশিন থাকলে কৃষকরা অনেক লাভবান হবেন: ডিসি কুষ্টিয়া কুষ্টিয়ায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন বিএডিসি কর্মকর্তা ঈদের দিনেও ঝড়বৃষ্টি বজ্রপাতের আভাস প্রবাসী জয় নেহালের সহযোগিতায় কুষ্টিয়া দিনমনি স্কুলের ছাত্রদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ সবুজকলি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উদ্যোগে ইউএনও সোহেল মারুফের বিদায় সম্বর্ধনা দৌলতপুরে নিখোঁজ শিশুর অর্ধগলিত বস্তা বন্দী লাশ প্রতিবেশীর বাড়ি থেকে উদ্ধার ১০ মায়ের মুখে হাসি ফোটাল কুষ্টিয়ার ‘মবিঅ’ কুষ্টিয়ায় একদল তরুনদের উদ্যোগে হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ
ঘোষণা:
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে...

মাদ্রসাছাত্রীকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণের পর হত্যা, প্রেমিক গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৩৮২ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ২০ মার্চ, ২০২১, ১২:০৪ অপরাহ্ন
ফাইল ছবি

নোয়াখালীর সদর উপজেলায় তুলে নিয়ে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে (১৬) গণধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে মাইজদী রেললাইনের পাশে একটি ভাড়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ওই কিশোরী উপজেলার চরমটুয়া ইউনিয়নের মাদ্রাসার দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

এদিকে এ ঘটনায় নিহতের স্বজনরা প্রেমিক রায়হানকে (২১) আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন। রায়হান বেগমগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ খানপুর গ্রামের ডা.আবদুল মোতালেবের ছেলে।

নিহতের পরিবার অভিযোগ, চরমটুয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের রাকিবের (২০) সহযোগিতায় প্রেমিক রায়হান উদয় সাধুরহাট বাজার থেকে ওই মাদ্রাসাছাত্রীকে কৌশলে সিএনজি চালিত অটোরিকশায় তুলে নিয়ে যায়।

পরে মাইজদী রেললাইনের পাশে একটি ভাড়া বাসায় নিয়ে কথিত প্রেমিক রায়হানসহ একাধিক তরুণ মিলে ওই কিশোরীকে গণধর্ষণ করে।

বেলা ১১টার দিকে ভুক্তভোগী কিশোরী কৌশলে তার বড় বোনকে ফোন করে ঘটনাটি জানায়।

মেয়েটি ফোনে বলে, আপু আমার সব শেষ হয়ে গেছে। আমারে এখান থেকে নিয়ে যা। আমি মাইজদীর আশপাশে আছি। তবে একেবারে সঠিকভাবে বলতে পারবো না কোথায় আছি। আমি পরে তোদের সব বলব। এর পরেই ধর্ষণকারীরা নির্যাতিত কিশোরীর ফোন বন্ধ করে দেয়। ধর্ষণ শেষে তাকে বেধড়ক মারধর করে হত্যা করে।

দুপুর দেড়টার দিকে অভিযুক্ত রায়হান ওই কিশোরীকে স্ত্রী পরিচয় দিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালে ওই কিশোরীর মরদেহ রেখে পালিয়ে যাওয়ার সময় নিহতের স্বজনেরা রায়হানকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

সুধারাম থানার ওসি সাহেদ উদ্দিন বলেন, পরিবারের অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে। মরদেহ ময়নাতন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে এবং রিপোর্ট অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :
এ জাতীয় আরো খবর ....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর