বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
জেলা প্রতিনিধি, উপজেলা প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি, বিভাগীয় প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি হিসেবে যোগ দেয়ার জন্য জীবনবৃত্তান্ত, জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি, পাসপোর্ট সাইজের ছবি ইমেইল করুন [email protected]  এই ঠিকানায়

বিয়ে ভেঙে যাওয়ায় চাচাকে খুন

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৫ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : সোমবার, ২৩ আগস্ট, ২০২১, ১১:২৯ অপরাহ্ন

পাবনার বেড়ায় বিয়ে ভাঙাকে কেন্দ্র করে ভাতিজার হাতে চাচা হাতিম (৫৫) খুন হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার রাত ৯টার দিকে পাবনা বেড়া পৌর এলাকার বাঙ্গাবাড়িয়া গ্রামে। হাতিম সোমবার বেলা ১১টার দিকে রাজশাহী মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বেড়া পৌর এলাকার ৮নং ওয়ার্ডের বাঙ্গাবাড়িয়া গ্রামের বাতেন প্রামাণিকের ছেলে সজিবের বিয়ে ঠিক হবার পর হঠাৎ কনেপক্ষ থেকে বিয়েটি না করে দেওয়া হয়। এতে তার আপন চাচা হাতিমের হাত আছে বলে তার ভাতিজাদের সন্দেহ হয়।

এ নিয়ে রোববার সন্ধ্যায় তারা পারিবারিকভাবে বাড়িতেই একটি ঘরোয়া বৈঠকে বসে। এ সময় বর সজিব উপস্থিত ছিল না। কিন্তু তার দুই ভাই সুরুজ আলী (৩৪) সাকিলসহ (৩২) পরিবারের অন্যান্যরা উপস্থিত ছিল। আলোচনার এক পর্যায়ে সজিবের চাচাকে এ বিয়ে ভেঙে দেওয়ার দোষারোপ করা হয়।

এ অভিযোগ তার চাচা হাতিম আলী অস্বীকার করলে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে সাকিল এবং সুরুজ দুই ভাই ক্ষিপ্ত হয়ে চাচার উপর লাঠিসোটা নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এতে হাতিম আলী গুরুতর আহত হন। পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যায়।

সেখানে তার অবস্থার অবনতি দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পরে তার অবস্থা আরও আশংকাজনক হলে রাতেই পাবনা থেকে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সোমবার সকাল ১১টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বেড়া মডেল থানার ওসি অরবিন্দ সরকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বরের দুই ভাই সাকিল এবং সুরুজকে আটক করা হয়েছে।

খবর: যুগান্তর


এ জাতীয় আরো খবর ....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর