বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:০৩ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
জেলা প্রতিনিধি, উপজেলা প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি, বিভাগীয় প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি হিসেবে যোগ দেয়ার জন্য জীবনবৃত্তান্ত, জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি, পাসপোর্ট সাইজের ছবি ইমেইল করুন [email protected]  এই ঠিকানায়

বরিশালে করোনা ও উপসর্গে ৮ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৭ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৭ আগস্ট, ২০২১, ১১:০১ পূর্বাহ্ন

বরিশাল বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ‍আটজনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনায় পাঁচজন ও উপসর্গ নিয়ে তিনজন মারা গেছেন।

একই সময়ে বিভাগে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১৪২ জন। আর এ সময়ের মধ্যে সুস্থ হয়েছে ৭৯৭ জন।

শুক্রবার সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া পাঁচজনের মধ্যে বরিশালের দুজন, ভোলার দুজন ও পটুয়াখালীর ‍একজন। সব মিলিয়ে বরিশাল বিভাগে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িাল ৬৪৫ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৪২ জন। এ নিয়ে বিভাগে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৩ হাজার ৩৭৮ জনে।

আর এ সময়ের মধ্যে সুস্থ হয়েছে ৭৯৭ জন, যা নিয়ে এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৩৬ হাজার ৩৩২ জন।

আক্রান্তদের মধ্যে বরিশাল জেলায় নতুন ৩৮ জন নিয়ে ১৭ হাজার ৭১৫ জন, পটুয়াখালীতে নতুন ১৯ জন নিয়ে ৫ হাজার ৯৭১ জন, ভোলায় নতুন ৪১ জনসহ ৬ হাজার ৩৩৮ জন, পিরোজপুরে নতুন ১৯ জনসহ ৫ হাজার ১৩৯ জন, বরগুনায় নতুন ১৬ জনসহ ৩ হাজার ৬৯৮ জন ও ঝালকাঠিতে নতুন ৯ জন নিয়ে ৪ হাজার ৫১৭ জন রয়েছেন।

এদিকে শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালকের দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় শুধু বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

এ নিয়ে শুধু শেবাচিম হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডেই উপসর্গ নিয়ে ৯৪৪ জন ও করোনা ওয়ার্ডে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৩৯২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

আর উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করা ৯৪৪ জনের মধ্যে ১২ জনের কোভিড টেস্টের রিপোর্ট এখনও হাতে পাওয়া যায়নি।

হাসপাতাল পরিচালক কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সকাল পর্যন্ত শেবাচিমের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে ১৩ জন ও করোনা ওয়ার্ডে আটজন ভর্তি হয়েছেন। করোনা ও আইসোলেশন ওয়ার্ডে এখন ১১৪ জন চিকিৎসাধীন। তাদের মধ্যে ৩৬ জন করোনা ওয়ার্ডে ও ৭৮ জন আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। আরটি পিসিআর ল্যাবে ১৯১ জন করোনা পরীক্ষা করান। এর মধ্যে ১৭ দশমিক ২৭ শতাংশ পজিটিভ শনাক্তের হার।

খবর: যুগান্তর


এ জাতীয় আরো খবর ....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর