মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৫৮ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
জেলা প্রতিনিধি, উপজেলা প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি, বিভাগীয় প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি হিসেবে যোগ দেয়ার জন্য জীবনবৃত্তান্ত, জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি, পাসপোর্ট সাইজের ছবি ইমেইল করুন [email protected]  এই ঠিকানায়

পদোন্নতির সিঁড়িতে প্রশাসনের আরও দুই ব্যাচ

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৭১ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : রবিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৭:১৯ পূর্বাহ্ন

প্রশাসনের আরও দুটি ব্যাচের কর্মকর্তারা পদোন্নতির দৌড়ে আছেন। এদের মধ্যে ১৫তম ব্যাচের যুগ্মসচিবদের অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতির বিষয়টি সক্রিয় বিবেচনাধীন। এছাড়া ২০তম ব্যাচের উপসচিবদের মাথায় রেখে যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতির প্রক্রিয়া শুরু হতে যাচ্ছে। বড় আকারে পদোন্নতির সম্ভাবনা আছে এই ব্যাচের কর্মকর্তাদের। উল্লেখ্য, সম্প্রতি ৯২ কর্মকর্তা অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি পেয়েছেন।

জানা গেছে, যুগ্মসচিব থেকে অতিরিক্ত সচিব হওয়ার জন্য পদোন্নতির শর্ত পূরণ করেছেন ১৫তম ব্যাচের কর্মকর্তারা। এ ব্যাচের সদস্য সংখ্যায় কম। এ কারণে দ্রুত এবং একসঙ্গে সবার পদোন্নতির সম্ভাবনা আছে। তবে একসঙ্গে পদোন্নতির ক্ষেত্রে কিছুটা শঙ্কা আছে ২০তম ব্যাচের ক্ষেত্রে। প্রশাসন ক্যাডারের ২০তম ব্যাচের সঙ্গে ৩০ ভাগ কোটায় অন্যান্য ক্যাডারের কর্মকর্তাও উপসচিব হয়েছেন। এছাড়া আগে যেসব উপসচিব পদোন্নতিবঞ্চিত তাদের সংখ্যাও এখানে যোগ হয়েছে। সব মিলে সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাড়ে পাঁচশ’। তাদের মধ্যে পদোন্নতি পাওয়ার সম্ভাবনা আছে দেড়শ-দুইশ জনের। যুগ্মসচিব পদে বর্তমানে পদের সংখ্যা প্রায় পাঁচশ। কর্মরত আছেন প্রায় ছয়শ কর্মকর্তা। অতিরিক্ত একশ জন পদ পাচ্ছেন না। এবার ৯২ জন অতিরিক্ত সচিব হওয়ায় এসব পদে তাদের পদায়নের সম্ভাবনা আছে।

২০ ব্যাচের উপসচিবরা অনেক আগেই যুগ্মসচিব পদোন্নতির যোগ্যতা অর্জন করেছেন। এরপরও তারা ধীরে চলছেন। তাদের প্রত্যাশা ১৫তম কর্মকর্তারা অতিরিক্ত সচিব হওয়ার পর তারা যুগ্মসচিব হবেন। এতে যুগ্মসচিব পর্যায়ে শূন্য পদের সংখ্যা বাড়বে। ফলে তারা পুরো ব্যাচ একসঙ্গে যুগ্মসচিব হবেন। এর আগে হলে ব্যাচ ভেঙে যাবে। এতে ব্যাচের অনেক প্রভাবশালী কর্মকর্তা যারা তালিকার শেষদিকে আছেন তারা বাদ পড়তে পারেন।

তবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ১৫ ব্যাচের আগেই ২০তম ব্যাচের পদোন্নতি হবে। এক্ষেত্রে ১৫ ব্যাচের কর্মকর্তাদের মধ্যে যতজন অতিরিক্ত সচিব হতে পারেন তাদের আসন শূন্য ধরেই যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি দেওয়া হতে পারে।

ব্যাচ ভেঙে পদোন্নতি চান না অনেক কর্মকর্তা। এ প্রসঙ্গে ২০ ব্যাচের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে যুগান্তরকে বলেন, আমাদের ব্যাচ অনেক দিন থেকে উপসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে। যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি পেতে দেরি হওয়ায় ওপরের দিকেও আমরা পিছিয়ে যাচ্ছি। অপর একজন কর্মকর্তা বলেন, দ্রুত পদোন্নতি না হলে কর্মকর্তারা মনোবল হারাবেন। কারণ একই ব্যাচকে ভেঙে একাধিকবার পদোন্নতি দিলে ভবিষ্যতে এই ধরনের রীতি প্রশাসনের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে অতিরিক্ত সচিব (এপিডি) আনিছুর রহমান মিঞা যুগান্তরকে বলেন, পদোন্নতি একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। সময় হলেই যোগ্য, মেধাবী ও দক্ষদের মূল্যায়ন করে সরকার। সামনের দিনেও এর ব্যতিক্রম হবে না।

খবর: যুগান্তর


এ জাতীয় আরো খবর ....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর