সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৩:১৭ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
জেলা প্রতিনিধি, উপজেলা প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি, বিভাগীয় প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি হিসেবে যোগ দেয়ার জন্য জীবনবৃত্তান্ত, জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি, পাসপোর্ট সাইজের ছবি ইমেইল করুন [email protected]  এই ঠিকানায়

লুঙ্গিকাণ্ড: পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে হাবিপ্রবির সেই ৫ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৩৬ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১ অক্টোবর, ২০২১, ৮:৫৩ অপরাহ্ন
ফাইল ছবি

বৈশ্বিক করোনা মহামারি পরিস্থিতির কারণে দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) সশরীরে পরীক্ষা না নিয়ে অনলাইনে পরীক্ষা নিতে গিয়ে বিভিন্ন সমস্যার উদ্ভব হয়েছে। অনলাইনে পরীক্ষা নিতে গিয়ে গত ২৭ সেপ্টেম্বর জুম কানেক্টিভিটি এবং ক্যামেরা প্লেসিং সমস্যার কারণে সাময়িকভাবে পরীক্ষা থেকে বিরত রাখা হয় ৫ জন পরীক্ষার্থীকে। যদিও পরবর্তীতে তারা ওই পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে বলে জানায় হাবিপ্রবি কর্তৃপক্ষ।

তবে বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশ পায়, লুঙ্গি পরার কারণে তাদের বহিষ্কার করা হয়। কিন্তু বিষয়টি সঠিক নয় জানিয়ে হাবিপ্রবি সূত্র জানায়, বৈশ্বিক করোনা মহামারী পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘ প্রায় দেড় বছর ধরে বন্ধ থাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ১২ হাজার শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবনে অনিশ্চয়তা নেমে আসে। কিন্তু গত তিনমাস আগে প্রফেসর ড. এম কামরুজ্জামান হাবিপ্রবির ভাইস চ্যান্সেলর হিসেবে যোগ দেওয়ার পর অনলাইনে পরীক্ষার উদ্যোগ নেয় এবং গত ৫ আগস্ট থেকে শুরু হয় বিভিন্ন সেমিস্টারের অনলাইনে পরীক্ষা।

এই পরীক্ষার অংশ হিসেবে গত ২৭ সেপ্টেম্বর বিএসসি ফুড অ্যান্ড প্রসেস ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রীর লেভেল-১, সেমিস্টার-১ এর সিএইচই-১১১ (রসায়ন-০১) কোর্সের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। অনলাইনে সমস্যার কারণে এই পরীক্ষায় ৫ জন পরীক্ষার্থীকে সাময়িকভাবে বিরত রাখা হয়।

এ বিষয়ে হাবিপ্রবির জনসংযোগ ও প্রকাশনা শাখার পরিচালক প্রফেসর ড. শ্রীপতি সিকদার জানান, ওই পরীক্ষায় উক্ত পরীক্ষার্থীদেরকে জুম কানেক্টিভিটি ও ক্যামেরা প্লেসিং এ সমস্যা জনিত কারণে সাময়িকভাবে বিরত রাখা হয়েছিল। তারা উক্ত সেমিস্টারের পরবর্তী পরীক্ষা সমূহ রুটিন মোতাবেক নির্দিষ্ট তারিখ ও সময়ে অংশগ্রহণ করবে এবং এই রুটিন অনুযায়ী পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর ওই ৫ জন পরীক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী যথারীতি ২৭ সেপ্টেম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে। এ ক্ষেত্রে তাদের কোনো সেমিস্টার লস হবে না বলে জানান তিনি।

প্রফেসর ড. শ্রীপতি সিকদার আরও জানান, বিদ্যুৎ বিভ্রাট বা ইন্টারনেট সমস্যার কারণে অনলাইনে পরীক্ষা চলাকালীন কোনো পরীক্ষার্থীর সংযোগ বিচ্ছিন্ন হতে পারে। এসব সমস্যার কথা বিবেচনা করেই এসব পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা পরবর্তীতে নেওয়ারও নিয়ম আছে। এই নিয়ম অনুযায়ী পরবর্তীতে পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে ওই ৫ শিক্ষার্থী।

সূত্র: যুগান্তর


এ জাতীয় আরো খবর ....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর