সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৪:৩১ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ায় প্রধান শিক্ষককে পেটালেন কাউন্সিলর

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৩৪ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ, ২০২২, ১০:৪৯ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ায় স্কুলের প্রধান শিক্ষককে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে কুষ্টিয়া পৌর সভার কাউন্সিলর সোহেল রানা আশার বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার সকালে শহরের লাহিনী বটতলা এলাকায় অবস্থিত লাহিনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে প্রবেশ করে ওই কাউন্সিলরসহ কয়েকজন মিলে প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামকে পিটিয়ে আহত করে। অভিযুক্ত সোহেল রানা আশা কুষ্টিয়া পৌরসভার ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর।

পরে হামলাকারী কাউন্সিলর আশা সহ তার সহযোগীদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করে।

প্রায় ঘন্টা ব্যাপি মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করার পর প্রশাসনের আশশাসের প্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীরা অবরোধ তুলে নেয়।
আহত প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম জানান, বিদ্যালয়ের আঙ্গিনার মধ্যে কাউন্সিলর আসাদুর রহমান আশা ইট,বালি, খোয়া রেখে দীর্ঘ দিন ধরে স্কুলের পরিবেশ নোংরা করে রাখছেন। পাশেই সিডিসির রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে। বিদ্যালয় থেকে ক্লাস চলাকালীন সময়ে জোরপূর্বক কাউন্সিলর আশা রাস্তার কাজের জন্য পাইপে করে পানি নেওয়াসহ বিদ্যালয়ের বিদ্যুৎ ব্যবহার করে আসছিলেন। এসব বিষয় নিষেধ করলে কাউন্সিলর আশাসহ কয়েকজন এসে বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষের আসবাবপত্র ভাংচুর করে এবং তাঁর উপর হামলা চালিয়ে আহত করে।

পরে শিক্ষার্থীরা
বিদ্যালয়ের ম্যানিজিং কমিটির সভাপতি মতিয়ার রহমান মজনু জানান, কারোও অনুমতি না নিয়ে কাউন্সিলর আশা বিদ্যালয়ের মধ্যে সিডিসির রাস্তা নির্মাণের সামগ্রী রেখে পরিবেশ নষ্ট করেছে এবং জোরপূর্বক বিদ্যালয়ের মোটর থেকে পাইপ দিয়ে পানি নেওয়া, বিদ্যুৎ ব্যবহার করে আসছিলো। ক্লাস চলাকালীন সময়ে খোয়া ভাঙ্গা,বালু ফেলা সহ শব্দ দুষণের কাজ করার সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিষেধ করলে তার উপরে হামলা চালায় এবং অফিস কক্ষের আসবাবপত্র ভাংচুর করেছে। এটা একটি জঘন্যতম অপরাধ।
এ বিষয়ে কাউন্সিলর আশা বলেন, সি ডি সি এর চাক বানানো কাজের বিষয়ে লেবারদের সাথে প্রধান শিক্ষকের বাক বিতর্ক হলে, বিষয়টির সুরাহা করতে আমার মামা ওখানে উপস্থিত হন প্রধান শিক্ষকসহ আরও কিছু লোক আমার মামাকে মারধর করেন। সংবাদ পেয়ে আমি দ্রুত স্কুলে গিয়ে প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা বলি বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করি তিনি আমার বিরুদ্ধে যা বলছেন সম্পূর্ণ মিথ্যা।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সাব্বিরুল আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছে। এ ব্যাপারে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।
তবে এ ব্যাপারে অভিযুক্ত পৌর কাউন্সিলর আসাদুর রহমান আশার সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।


এ জাতীয় আরো খবর ....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Translate »
error: Content is protected !!
Translate »
error: Content is protected !!